বাসর

real_love-normal5.4 আচ্ছা, তোমার কি এখনো মনে হচ্ছে যে আমরা বিবাহিত? ব্যাপারটা কি একটু ভড়কে যাওয়ার মত নয়? কেউ কাউকে চিনি না, জানি না, আর আজকে আমরা স্বামী-স্ত্রী। আমি এখনো ধাতস্থ হতে পারি নি। তবে এত সহজে ধাতস্থ হওয়ার কথাও না।

আল্লাহর নামে শপথ করে বলছি, জীবনে আমি কোনদিন কোন মেয়ের সাথে সম্পর্ক করি নি। প্রেম করি নি। কোন মেয়েকে স্পর্শ করি নি। বিয়ের পবিত্র বন্ধনের আগে মানুষ প্রেম-ভালবাসা করে, এই সব জিনিস আমার কাছে খুবি নোংরা লাগে। আর এখন নিজের সামনে দেখি তোমার মত অপরূপা সুন্দরী একজন মেয়ে আমার স্ত্রী হিসেবে বসে আছে—যাকে আমি চাইলেই ছুঁয়ে দেখতে পারি, জড়িয়ে ধরতে পারি, চুমু খেতে পারি, কোলে নিয়ে আদর করতে পারি। আমার ত হ্যালুসিনেশন হওয়াই স্বাভাবিক। এবং হচ্ছেও তাই। আজকে তোমাকে কাছে পাওয়ার যে অনুভূতি হচ্ছে, তা কোনদিন কাউকে বলে বোঝাতে পারব না। এটা হচ্ছে সেই অনুভূতি, যা শুধু অনুভব করা যায়, ভাষায় প্রকাশ করা যায় না।

আচ্ছা, তুমি কি নিজেও জান তুমি কত রুপবতী? এই পৃথিবীতে এক ধরণের রুপবতী আছে, যাদের দিকে চোখ পড়লেই বুকে ধাক্কার মত লাগে। তাদের দিকে বেশিক্ষণ তাকিয়ে থাকা যায় না। তুমি হচ্ছে সেই ধরণের রুপবতী। তবে তোমার দিকে আমি তাকিয়ে থাকব। কারণ তোমাকে না পাওয়ার বেদনা আমার হৃদয়কে বিদীর্ণ করবে না।

আমাদের কালচারের একটা দিক কি জানো……এই কালচারে কেই কারো জন্য ভালবাসা প্রকাশ করতে পারে না। স্বামী স্ত্রীকে বলতে পারে না ভালবাসার কথা। স্ত্রী স্বামীকে বলতে পারে না ভালবাসার কথা। ছেলে-মেয়েরা মা-বাবাকে বলতে পারে না ভালবাসার কথা। মা-বাবাও ছেলে-মেয়েকে বলতে পারে না তাদের ভালবাসার কথা। অথচ সবাই সবাইকে প্রচণ্ড ভালবাসে। তার চেয়ে বড় কথা হল, সবাই ভালবাসার কথা শুনতে চায়, কিন্তু সেই কথা কেউ সাহস করে, লজ্জা ভেঙ্গে শোনাতে পারে না। আমি চাই না আমাদের সংসার এরকম হোক। আমি চাই সেই সংসার যেখানে সবাই খুব সহজেই ভালবাসার কথা প্রকাশ করতে পারবে। কোন মেন্টাল ব্লক বা মানসিক বাঁধায় কেউ ভুগবে না।

আমি শুনেছি, দু জন মানুষ নাকি সারা জীবন ঘর সংসার করেও একজন আরেকজনকে চিনতে পারে না। আর আমাদের ত আজকে মাত্র বিয়ে হয়েছে। আমি তোমাকে ভাল করে এখনো জানি না, চিনিও না। তোমাকে ভাল করে দেখিও নি। তারপরেও কি মনে হচ্ছে জান? আমি তোমাকে চিনি এবং আমি তোমাকে জানি। এবং আমি তোমাকে ভালবাসি। চেনা জানা ছাড়াই তোমাকে ভালবেসে ফেলেছি। তোমাকে হৃদয়ের অংশ করে ফেলেছি। আমি এখানে অস্বীকার করছি না যে আমার ভালবাসায় একটা স্থূল অংশ রয়েছে। তবে বিশ্বাস কর, স্থূল অংশের চেয়ে সূক্ষ্ণ অংশের পরিমাণ অনেক বেশি।

একটা বয়স হবার পর, একটা ছেলের বুকের ভেতর ভালবাসা জমতে থাকে। এক সময় সে এই ভালবাসা কাউকে দিতে চায়। আমি কোনদিন আমার এই ভালবাসা কাউকে দেই নি। আজকেই দিচ্ছি প্রথম তোমাকে। তুমি হচ্ছ আমার জীবনে প্রথম। বুকের যত আটকানো ভালবাসা আছে, তার সবটাই তোমাকে দেব। সেই ভালবাসার গভীরতা তুমি কোনদিন অনুভব করতে পারবে না। সেই ভালবাসা অতলস্পর্শ। ভালবাসার কলসি উপুড় করে দেব, তবে সেই কলসি খালি হবে না কোন দিন।

আমি তোমাকে ভালবাসি। এখন বল কথাটা কি খুব সহজে বলতে পারলাম? মনে হয় না। কারণ কোনদিন কোন আপনজনকে ভালবাসার কথা বলি নি। সেজন্য প্র্যাক্টিস করতে হবে।

যখন ক্লাস নাইন টেনে পড়তাম, তখন মনটা অনেক রোমান্টিক ছিল। তখন গল্প উপন্যাস পড়তাম। রোমান্টিক ভাবনা-স্বপ্ন হুঁট করে মাথায় চলে আসত। পরে সময়ের সাথে বদলে গেছি। বাস্তবতার আঘাত মানুষকে বদলে দেয়। আমারো সেরকম হয়েছে। রোমান্টিক স্বপ্ন আগে যেরকম হুঁট করে চলে আসত, এখন আর সেভাবে আসে না। রোমান্টিক স্বপ্ন বিলাসিতার কথা বলতে এখন লজ্জা আগে।

তবে একটা স্বপ্নের কথা বলতেই হবে। খুবি কমন এবং সাদামাটা ধরণের স্বপ্ন। প্রতিদিন কাজ থেকে ফিরে এসে রাতে তোমাকে জড়িয়ে ধরে শুয়ে থাকব। আমার বুকে তুমি মাথা রাখবে। আর আমি তোমার চুলে বিলি কাটব। তুমি আমার বুকে মাথা রেখে ঘুমিয়ে পড়বে। জানালা দিয়ে আসবে চাঁদের আলো। সেই চাঁদের আলোয় আমি দেখতে থাকব তোমার নিষ্পাপ মুখ। চুমু খাব। চোখ ফেরাব না। ঘুম থেকে ওঠার তুমি বলবে, এখনো তাকিয়ে আছ? আমি বলব, তাকিয়ে না থেকে কি কোন উপায় আছে? চোখ ফেরানো আমার পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। কারণ তোমার রূপের আগুনে চোখের কলকব্জা বিকল হয়ে গেছে।

আমার মনে হয় না আমি কোন রাতে ঘুমাতে পেরেছি এই স্বপ্ন না দেখে। আজকে কি সেই স্বপ্ন পূরণ হওয়ার রাত নয়?

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s